কক মোরগ কৃষি তথ্য ও সার্ভিস-SUNDARBAN FARM -
কক মরোগ পালন

কক মরোগ পালন

পালন তথ্যঃ

সাদ বা লালা লেয়ার মুরগির বাচ্চা থেকে পরুষ বাচ্চা বাছায় করা হয় এবং সেই পরুষ বাচ্চা কে কক মরোগ বলে

কক  জাতের মোরগ ক্ষেত্রে পালন কালীন সময় ৫৫-৬০ দিন।
৫৫-৬০ দিনে একটি মুরগি গড়ে ১.৫ কেজি খাদ্য গ্রহন করে।
৫৫-৬০ দিনে একটি মুরগির গড় ওজন ৭০০ গ্রাম হয়ে থাকে।
নিয়মিত টীকা প্রদান করলে এবং খামার পরিচ্ছন্ন রাখলে রোগ-বালাই আনুপাতিক হারে কম দেখা যায়।  কক জাতের মুরগির ক্ষেত্রে এখনো কোন মহামারী পরিলক্ষিত হয়নি ।
ব্রয়লার মাংসের প্রতি অনেকের অনীহা থাকলেও সোনালি মুরগির মাংসের চাহিদা ব্যাপক। বাজার দরও বেশ ভালো।

ব্রুডিং ব্যবস্থাপনাঃ
বাচ্চা আসার তিন ঘন্টা থেকে আসার পর প্রথম ২৪ ঘন্টা পর্যন্ত করনীয় ব্রুডারের সমস্ত প্রয়োজনীয় জিনিস যেমন লিটার পেপার, চিকগার্ড, পানি, হোভার, খাবারের পাত্র সব তিন ঘন্টা আগেই বসিয়ে নিতে হবে যথাযথ জায়গায়।
হোভারের লাইট দুই-তিন ঘন্টা আগেই জ্বালিয়ে রাখতে হবে এবং একঘন্টা পর থার্মোমিটারের রিডিং পরীক্ষা করতে হবে।
বাচ্চা আসার ১০ মিনিট আগেই পানির পাত্র এবং খাবার পাত্র যথাযথ জায়গায় বসিয়ে দিতে হবে।
বাচ্চা দুর্বল থাকলে পৃথক করে গ্লুকোজের পানি ফোটায় ফোটায় খাইয়ে দিতে হবে। বাচ্চা সবল থাকলে প্রথম দুই ঘন্টা শুধুমাত্র জীবানুমুক্ত সাদা পানি দিতে হবে। বাচ্চা দুর্বল থাকলে গ্লুকোজের পানি দিতে হবে।
বাচ্চা আসার ১০ মিনিট পর খাবার দিতে হবে। এক্ষেত্র শুধুমাত্র প্রথমবার পেপারে ছিটিয়ে দিয়ে পরে অবশ্যই ট্রেতে খাবার দিতে হবে।
বাচ্চার অবস্থা ৩ ঘন্টা পরপর পর্যবেক্ষণ করতে হবে দেখতে হবে তাপ বেশী হচ্ছে কিনা। কোন সমস্যা থাকলে সমাধান করতে হবে এবং বাচ্চা মৃত থাকলে সরিয়ে ফেলতে হবে। খাবার পানি শেষ হলে খাবার পানি দিতে হবে। পেপার ভিজে গেলে পাল্টে দিতে হবে। ২৪ ঘন্টা পর পেপার সম্পূর্ন ভাবে সরিয়ে ফেলতে হবে।

প্রথমে এটাকে বিজনেস মনে করতে হবে। শখের বসে মুরগি পালন করতে গেলে লাভের মুখ দেখা যায় না। তাই লেয়ার পালনের মত গুরত্ব দিয়ে কক মুরগি পালন করতে হবে।
কক ক্ষেত্রে ব্রুডিং কালে “এস্পারজিলোসিস” হবার প্রবল সম্ভবনা থাকে। তাই ব্রুডিং কালে লিটারে তুঁতের পানি ছিটিয়ে ব্রুডিং করা ভালো।
কক ক্ষেত্রে খামারীদের ভ্যাকসিন করতে এক প্রকার উদাসীন ভাব দেখা যায়। ডিম উৎপাদনের জন্য কক মরোগ পালন করতে চাইলে ভ্যাকসিন করার বিকল্প নেই। এক্ষেত্রে লেয়ারের ভ্যাকসিনসূচি অনুযায়ী ভ্যাকসিন করতে হবে।
অবশ্যই কক মরোগে ৭ থেকে ১০ দিনের মাঝে “বিক ট্রিমিং” ও ১০ থেকে ১১ সপ্তাহের মাঝে “ডিবেকিং” করতে হবে।
অন্যান্য বানিজ্যিক লেয়ারের মতই আলোক কর্মসূচি মেনে চলতে হবে

একজন ভেটেরিনারিয়ান,তাই ডিজিটাল বাংলাদেশের প্রাণিসম্পদ সেক্টরের উন্নয়নে ভূমিকা রাখার লক্ষ্যে দেশের শিক্ষিত সমাজকে লাইভস্টক সেক্টরে কাজ করতে উৎসাহিত করার প্রচেষ্টা করছি।সেই লক্ষ্যে ফেসবুক,ইউটিউব এবং ব্লগ সাইটের মাধ্যমে ফার্মারদের নানাবিধ পরামর্শ প্রদান করতে চেষ্টা করি।ইতোমধ্যে আমার ইউটিউব চ্যানেল ১ লক্ষাধিক সাবস্ক্রাইব অর্জন করায় ইউটিউব থেকে চ্যানেলটি ভেরিফাইড হয়েছে।

    SUNDARBANFARM

    %d bloggers like this: