হাঁস মুরগির পালন কৃষি তথ্য ও সার্ভিস-SUNDARBAN FARM -

দেশি কবুতর পালন

আধুনিক পদ্ধতিতে দেশি ও বিদেশি কবুতর পালন পদ্ধতি, Kobutor Palon Poddhoti, পায়রা পালন পদ্ধতি, রুমের ভিতর কবুতর পালন , বিদেশি ও বিভিন্ন কবুতর পালন শুরু করার আগে এর খাবার এবং রোগ সম্পর্কে ধারনা থাকতে হবে। কবুতর একটি সাধারণ রূপে পোষা প্রাণী। এর সাধারণত স্থানভেদে নাম পরিবর্তন হয় যেমন, পায়রা বা কবুতর। সারা বিশ্ব জুড়ে ৩০০ টির ও বেশি প্রজাতির কবুতর রয়েছে । পায়রা পালনের জন্য অতিরিক্ত ব্যয় বহুল কোন খরচ নেই । কবুতর চাষ করে ব্যবসা করতে চাইলে আপনি রেসিং, ব্রিডিং এবং শোয়ের মতো বিভিন্ন ধরনের কবুতর চাষ করা যেতে পারে। কবুতর গুলি একটি নির্দিষ্ট মাচায় বা খাচা , বাগান বা বাড়ির উঠোনে রাখা যেতে পারে।

পায়রা সাধারণত জোড়ায় বাসা বাঁধে। প্রতিটি জোড়ায় একটি পুরুষ পায়রা এবং একটি মহিলা পায়রা থাকে। কবুতর বছরে ১০ থেকে ১২ বার ডিম দেয়। ডিম দেওয়ার পরে, পুরুষ এবং মহিলা উভয় কবুতরই ডিম ফোটানোর জন্য তাওয়া বা ওম দেয় ।কবুতরের জুটি যদি কখনও ভেঙে গেলে , আপনাকে আবার নতুন জুটির সাথে মিল করতে গিয়ে কিছুটা কষ্ট পেতে হয়। নতুন জুটির বা সঙ্গী করার জন্য স্ত্রী ও পুরুষ কবুতর টিকে কিছুদিন একই ঘরে আটকিয়ে রাখতে হয়।

কবুতর পালন পদ্ধতি
কবুতর পালন পদ্ধতি

কবুতরের বাসস্থানঃ কবুতরের বাসস্থান সব সাময় উচু জায়গাতে হয়া উচিৎ কারণ তারা সব সময় পরিষ্কার ও নিরিবিলি জায়গা পছন্দ করে। কবুতরগুলি শীতলতা সম্পর্কে বেশ সহনশীল তাই এই উচু পরিবেশ টি তাদের পক্ষে ভাল । তাদের ঘর টি জলরোধী থাকে হবে যাতে করে , ঘর সব সময় শুকনো থাকে কারণ তারা স্যাঁতসেঁতে জায়গা পছন্দ করেনা । আর স্যাঁতসেঁতে জায়গাতে কবুতর দের রোগ-বালাই বেশি হয় ।এদের রোগ হলে এরা কম বাঁচে এরা খুব সৌখিন পাখি।

উঁচু জায়গায় বাসা বাঁধতে হবে , যাতেকরে সুন্দর ভাবে বায়ু চলাচল করতে পারে। মাটি থেকে কবুতর ঘরের উচ্চতা ২০ থেকে ২৫ ফুট এবং কবুতরের বাসা বা ঘর থেকে চালের উচ্চতা ৮ থেকে ১০ ফুট হওয়া উচিত। সুন্দর ভাবে কবুতর চাষ করার জন্য ৪০ থেকে ৫০ জোড়া কবুতর আদর্শ। কবুতরের বাসা দুটি বা তিন তলা করা ভাল , বেশি উচু করলে কবুতরের বিভিন্ন অসুবিধা হয়ে থাকে। ঘরগুলি কাঠ, বাঁশ, খড় ইত্যাদি দিয়ে সহজেই তৈরি করা যায়। কবুতরের ঘরের বাইরে বা খামারের অভ্যন্তরে নরম শুকনো খড় দেওয়া ভাল কারণ ডিম পাড়ার সময় খড়, শুকনো ঘাস এবং তরুণ ঘাস দিয়ে তারা তাদের ঠোট দিয়ে নিজের বাসা তৈরি করে থাকে ।

দেশি কবুতর পালন
দেশি কবুতর পালন

 

ব্যবস্থাপনাঃ

পায়রা শীতকালে খুব বেশি অসুস্থ হয়ে থাকে। এ জন্য শীতকালে কবুতরের ঘরটি বাতাস মুক্ত রাখতে হবে। রাতে ঘরের তাপমাত্রা স্বাভাবিক রাখতে হবে । ঘরটি শুকনো ও পরিষ্কার রাখতে হবে। ঘরের লাইট বন্ধ করার আগে খাবার ও পানির পাত্র গুলি কবুতরের খাঁচা বা ঘর থেকে বের করে আনতে হবে। শীতকালে সাধারণত সকালে ঠান্ডা থাকে , তাই আপনাকে দেরীতে ঘরের দরজা খুলতে হবে এবং দেরিতে খাবার দিতে হবে । সম্ভব হলে কবুতরের ঘরের জন্য আপনাকে আলাদা পোশাক তৈরী করতে হবে।

এটি প্রস্তাবিত হয় যে আপনি কবুতর তুলছেন, আপনি যখন প্রথমে তাদের বাড়িতে আনবেন, আপনি তাদের এক বা দু’মাস ধরে তাদের আলাদা স্থানে সরিয়ে রাখাবেন । এটি নিশ্চিত করবে যে তারা আত্মবিশ্বাসী এবং তাদের আশে পাশের জায়গা গুলির সাথে পরিচিত তাই তারা যখন বাড়ি ফিরে যাবে শেষ পর্যন্ত তাদের এখনও উড়ে যাওয়ার দরকার নেই, সুতরাং এটি নিশ্চিত করুন যে পৃথক উড়ন্ত অঞ্চল হিসাবে ব্যবহার করার জন্য মাচা বা কওপের পর্যাপ্ত জায়গা রয়েছে । অনুশীলনের জন্য তাদেরও রান করা উচিত। কবুতরের খুব শক্ত ডানা থাকে এবং দীর্ঘ দূরত্ব এবং সময়কালের জন্য উড়ে যেতে পারে। বেশিরভাগ গৃহপালিত কবুতরগুলি তাদের বাড়ি থেকে প্রায় ১০ থেকে ১২ মাইল দূরে উড়ে যায়, তবে প্রয়োজন হলে তাদের কয়েক মাইল উড়তে প্রশিক্ষণ দেওয়া যেতে পারে।

    SUNDARBANFARM

    %d bloggers like this: