হাঁস মুরগির পালন কৃষি তথ্য ও সার্ভিস-SUNDARBAN FARM -
ফাউল কলেরা

ফাউল কলেরা রোগ – Fowl cholera

মুরগির ফাউল কলেরা রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার সম্পর্কে।ফাউল কলেরা এই রোগ টি একটি খুব পরিচিত রোগ । পাস্তরেলা মাল্টাসিভা নামক ব্যাকটেরিয়া জনিত রোগ , এই রোগ বিশ্বব্যাপী দেখা যায় । প্রথম ১৮৮০ সালে লুই পাস্তুর দ্বারা স্বীকৃত সংক্রামক রোগ গুলির মধ্যে একটি।পাস্তেরেলা মাল্টোসিডা (Pasteurella matocida) দ্বারা সৃষ্ট ব্যাকটিরিয়া ফাউল কলেরা রোগের জন্য দায়ী । বয়সক মোরগ ও মুরগি দের এই রোগ বেশি দেখা যায় । আত্যাধিক গরমে এই রোগ বেশি দেখা যায় । এই রোগে মৃত্যুর হার অনেক বেশি ।কলেরা মুরগির একটি সংক্রামক রোগ। এটি ব্যাকটিরিয়া রোগ এই রোগে মৃত্যুর হার প্রায় ৫০-৭০% হতে পারে। এই রোগ হলে প্রায় খামারি দের প্রচুর আর্থিক ক্ষতি গ্রস্থ হয়।

মুরগির ফাউল কলেরা রোগের লক্ষণ

 

ফাউল কলেরা সম্পর্কে কিছু তথ্যঃ

  • ফাউল কলেরা  রোগটি ২-৪ মাস বয়সী মুরগীতে দেখা যায়।
  • খুব বেশি গরম পড়লে মুরগি এই রোগে বেশি আক্রান্ত হয়।
  • এছাড়াও, পরিবেশে খুব বেশি আর্দ্রতা থাকলে এই রোগ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

লক্ষণঃ

কোনলক্ষন প্রকাশের পূর্বেই মুরগি বা পাখি মারা যায় । শরীলের তাপমাত্রা বেড়ে যায় ,মুরগি গুলার পালক উস্কো-খুস্কো দেখা যায় , মুখদিয়ে লালা পড়ে , মুখ রক্তাভ হয়ে যায় , দূর্গন্ধ যুক্ত পায়খানা করে , শ্বাস- প্রশ্বাস দ্রুত হয়ে যায় । সাধারণত আক্রান্ত মুরগির প্রথ দিকে সাদা ও পাতলা পায়খানা দেখা যায় ।পরবর্তিতে পায়খানা সবুজ রং এর হয়ে যায় ।

  • জ্বর থাকবে।
  • পালক গুলা অমসৃণ থাকবে
  • ক্ষুধামান্দ্য থাকবে
  • ডায়রিয়া হবে।
  • কাশি থাকবে।
  • নাখ, চোখ ও মুখ দিয়ে পানি বা সর্দি পড়বে ।
  • মাথার ঝুটি ও গলার ফুল ফুলে যাবে।।
  • মুরগী দুবল হয়ে যাবে।
  • হাড়ের জয়েন্ট গুলি ফুলে যাবে
  • মাথা নিচের দিকে দিয়ে ঝিমাবে।
  • ডিম উৎপাদন কমে যাবে।

 

ফাউল কলেরা রোগের পোস্ট মটেম লক্ষনঃ

  • কখনও কখনও কোনও কিছুই হয় না।।
  • শরীলের কয়েকটি সাইটে রক্তক্ষরণে চিহ্ন বদ্ধ থাকে ,
  • হৃদপিন্ড, গিলা , উদরের চবিতে হালকা রক্ত বিন্দু পাওয়া যাবে  ,
  • যকৃ্ত কাল হয়ে যাবে, এবং শতকরা প্রায় ৮০% মুরগিতে যকৃ্তে সাদা স্পট পাওয়া যাবে।
  • ওভা গুলো ভাঙ্গা, ভাঙ্গা হয়ে যাবে।
  • আন্ত্রিক ক্ষত দেখা যাবে।
  • হৃদপিন্ডে অসংখ্য রক্তের ফোটা পাওয়া যাবে।
  • মুরগি ফুসফুস গুলিতে একীভূত গোলাপী ‘রান্না করা’ চেহারাযুক্ত দেখা যাবে ।

 

মুরগির ফাউল কলেরা রোগের প্রতিকার

`

 

চিকিৎসাঃ

যেহেতু ব্যাক্টেরিয়াজনিত রোগ তাই যে কোন একটি ভালো এন্টিবায়োটিক দিতে হবে।
সে হিসাবে , ciprofloxacin, gentamycin, doxacycline ৩-৫ দিন দেয়া যেতে পারে।
এছাড়া যেহেতু পায়খানার সমস্যা আছে তাই একটি সালফার গ্রুপের ঔষধ দিতে হবে।
যেমনঃ  Ati vet suspension/ Sulphatrim powder/S-trim vet ৩-৫ দিন এন্টিবায়োটিক এর সাথে দিতে হবে।
উপরের ঔষধ বাদে ও আরও কিছু ঔষধ চালানো যেতে পারে ।
যেমনঃ
Cotroa-Vet Powder ( কট্ট-ভেট পাউডার )
Cotrimi- Vet Suspension ( কোট্রিম-ভেট সাসপেনশন )
Enrofloxacin-Vet Sulution ( এনফ্লুক্র- ভেট সলিউশন )
তিন টি ঔষধ থেকে যে কোন একটি ব্যবহার করুন ।
তারপর,  লিভার টনিক ( Liver Tonic) এবং এলেকট্রলিটি পাউডার ( Electrolyte powder )

প্রতিরোধ
বায়োসিকিউরিটি, ভাল রডেন্ট কন্ট্রোল, হাইজিন, ৪ এবং ১২ সপ্তাহে ব্যাকটেরিন, ৬ সপ্তাহে লাইভ ওরাল ভ্যাকসিন।

  • গরম বেশি পড়লে ভিটামিন সি / লেবুর রস দেয়া যেতে পারে।
  • ফাউল কলেরা ভ্যাক্সিন দিতে হবে।
  • খামারে জৈব নিরাপত্তা ভালোভাবে নিশ্চিত করতে হবে।
  • খামারে ইদুরের উপদ্রুপ সম্পুনরুপে বন্ধ করতে হবে।
  • সব সময় একজন ভাল রেজিস্টাড ভেটরিনারিয়ানের পরামশ নিতে হবে।

    SUNDARBANFARM

    %d bloggers like this: