হলুদ চাষ রোগ কৃষি তথ্য ও সার্ভিস-SUNDARBAN FARM -
হলুদের কন্দ পচা রোগ

হলুদের কন্দ পচা রোগ

রোগের নামঃ

হলুদের কন্দ পচা রোগ

রোগের কারনঃ

Pythium aphanidermatumPythium graminicolum ও Fusarium sp. ছত্রাকের আক্রমণে এই রোগ হয়।

লক্ষণঃ

  • জীবাণু আক্রমণে প্রথমে হলুদ গাছের নিচের পাতা হলুদ হতে শুরু করে। পরবর্তীতে সমস্ত পাতা হলুদ হতে পারে।
  • এ রোগে আক্রান্ত গাছের মাইজ পাতা ধরে টান দিলে সহজেই পাতাটি উঠে আসে এবং কন্দে পচন দেখা যায়।
  • জীবাণু বীজ ও মাটি বাহিত হওয়ায় সহজেই আক্রান্ত গাছ হতে সুস্থ্য গাছে সেচের পানির মাধ্যমে বিস্তার লাভ করে।
  • অধিক আপেক্ষিক আর্দ্রতা (৮৭-৯০%) এবং উচ্চ তাপমাত্রা (২৩-৩০০ সে.) এই জীবাণু সহজেই কন্দকে আক্রমণ করতে পারে।

সমন্বিত দমন ব্যবস্থাপনাঃ

  • ম্যানকোজেব+ মেটালাক্সিল গ্রুপের ছত্রাকনাশক যেমন-রিডোমিল গোল্ড এমজেড-৬৮ ডাব্লিউজি পিথিয়াম, ফাইটোপথোরা ইত্যাদি দমনের জন্য অত্যন্ত কার্যকর।
  • রিডোমিল গোল্ড এমজেড-৬৮ ডাব্লিউজি জাতীয় ছত্রাকনাশক প্রতি লিটার পানির সাথে ২ গ্রাম হারে মিশিয়ে বীজ শোধন ও গাছের গোড়ায় স্প্রে করলে হলুদরে কন্দ পচা রোগের প্রকোপ কমে যায়।
  • রিডোমিল গোল্ড এমজেড-৬৮ ডাব্লিউজি হলুদের কন্দ পঁচা রোগ দমনের জন্য দুইভাবে ব্যবহার করতে হবে, যেমন-১) হলুদের কন্দ শোধন করা ও রোগের লক্ষণ প্রকাশের সাথে সাথে গাছের গোড়ায় স্প্রে করা। হলুদের বীজ কন্দ রোপণের পূর্বে ৪০ লিটার পানির মধ্যে ৮০ গ্রাম রিডোমিল গোল্ড এমজেড-৬৮ ডাব্লিউজি মিশিযে উহাতে প্রয়োজনীয় পরিমাণ হলুদের কন্দ ৩০ মিনিট ভিজিয়ে রাখতে হবে এবং ৩০ মিনিট পর উহা হালকা ছায়ায় শুকিয়ে জমিতে রোপণ করা।
  • রোগের লক্ষণ প্রকাশের সাথে সাথে প্রতি লিটার পানিতে ২ গ্রাম রিডোমিল গোল্ড এমজেড-৬৮ ডাব্লিউজি মিশিয়ে ১৫ দিন পর পর ৩-৪ বার গাছের গোড়ায় স্প্রে করা।

    SUNDARBANFARM

    %d bloggers like this: