জিনসিং - কৃষি তথ্য ও সার্ভিস-SUNDARBAN FARM কৃষি তথ্য ও সার্ভিস-SUNDARBAN FARM জিনসিং
নাম : জিনসিং

                           বিবরণ

আসল জিনসিং কি

অনলাইন ডেস্ক : যারা জিনসিং নিয়ে ভূল বুঝে জিনসিং নামের ক্যামিক্যাল খেয়ে জীবন কে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিচ্ছেন জেনে নিন আসল জিনসিং কি? জিনসিং/Ginsing ভাষানুযায়ী নামঃ- বাংলা-মানুষ মূল, আরবী-খি ইনসান, ফারসী- বিখ ইনসান, উর্দ্দু-বিখ আদমী, হিন্দি- মনুষ্যমূল ।

পরিচিতিঃ- জিনসিং বহুবর্ষতৃণাবৃত উদ্ভিদ,যার জীবনকাল ১০০ থেকে ২০০ বছর পযন্ত। গাছ ১ থেকে ২ ফুট উচু এবং কান্ডের শেষাংশে একটি গুচ্ছ থেকে পাঁচটি পাতা বের হয় যা হাতের আঙ্গুলের মত অসমান। পাতা গুলো লম্বাটে ডিম্বাকার এবং সূতীক্ষ্ণ ধার বিশিষ্ট । নিচের দুটি পাতা অন্যগুলো থেকে ছোট।

লম্বা বোটা বিশিষ্ট পাতাগুলো একটি বিন্দু থেকে বের হয়ে একই সমান্তরালে অবস্থান করে। পাতার কিনারা করাতের মত কাটা । পত্রগুচ্ছের কেন্দ্র হতে ১ থেকে ১.৫ ফুট লম্বা একটা পুষ্পদন্ড নির্গ্ত হয় । যার শীর্ষে্ শরৎকালে তাৎপর্য্হীন আকর্ষ্নীয় ছোট ছোট সবুজাভা বা সাদা লালাভ ছাতার মত ফুল হয় । ফল লাল বর্ণ্ বেশ রসাল হয় । ফলের ভেতর দু’তিনটা দানা থাকে । ফল গুলো র্মাবেলের মত পাতার ফাকে প্রথমেই চোখে পড়ে ।

মাটির নিচে মূলটি সিলিন্ডারের মত লম্বা ও মাংসল হয় । মূলের গায়ে আংটির মত গোল ভাঁজ হলুদাভাব হয়ে থাকে । মূলাগ্রে ২ থেকে ৪ টি শাখা –প্রশাখা বের হয় এবং কোন সময় ৬ টিও দেখা যায় । এগুলোর আবার সূক্ষ্ণ সূক্ষ্ণ ছোট মূল রোম থাকে ।মন্তর বৃদ্ধিই জিনসেং গাছের অন্যতম বৈশিষ্ট । দ্বীতীয় বছরে কেবলমাত্র বীজের অঙ্কুরোদগম ঘটে । বন্য জিনসেং ১০ থেকে ১১ বছর বয়সে প্রথমবারের মত ফুল দেয় । জিনসেং শিকড় ব্যবহার হয় । মূলের ওজন ১০ থেকে ৫০ গ্রাম পর্য্ন্ত হয় । তবে গাছের বয়স ৫০ থেকে ১০০ বছর হলে ৩০০ থেকে ৪০০ গ্রাম এমনকি ৬০০ গ্রাম পর্য্ন্ত ওজন হয় । চাষ করা জিনসেং ৬ থেকে ৮ বছরে সংগ্রহ করা যায় । মূলকে সংগ্রহ করে ৩০ মিনিট বাস্পে ধরে রেখে বা ৬০ সেন্টিগ্রেট তাপে শুকিয়ে নিতে হয় ।

প্রাপ্তি স্থান– চীন, আমেরিকা, কোরিয়া, রাশিয়া, সিঙ্গাপুর ও তিব্বত জিনসেং এর জন্মস্থান । বিখ্যাত চীনা দার্শনিক খৃষ্টপূর্ব্ ৫৫১ অব্দে জিনসেং সম্পর্কে উচ্চ ধারনা পোষন করেছেন । আমেরিকায় ১৭ শতক থেকে জিনসেং রপ্তানি করে আসছে । জিনসেং সাধারনত পাহাড়ের অনাবাদী বৃহদায়তনের পত্রের সরলবর্গীয় অরন্যঞ্চলে ভাল নিস্কাসনের ব্যবস্থা আছে এমন ঢালু জায়গায় ভাল জন্মে । মিযাজ – জিনসেং উষ্ণন ও শুস্ক প্রকৃতির ।

বর্ণ্– জিনসেং পাতা সবুজ, শিকড় লাল মিশ্রিত সাদা এবং রক্ত বিন্দুর মত দাগযুক্ত । স্বাদ– জিনসেং মিষ্টি স্বাদযুক্ত। গন্ধ– জিনসেং ফুল ও মূল মিষ্টি ও রুচিকর সুগন্ধযুক্ত । মাত্রা– জিনসেং প্রয়োজন মত । প্রতিক্রিয়া– উচ্চ রক্তচাপ, দুবর্ল্ হৃপিন্ড, আলসার ও অন্দ্রপ্রদাহের জন্য ক্ষতিকর । সংশোধন– শীতল প্রকৃতির দ্রব্য এর সংশোধক । বিশেষ ক্রিয়া– রোগ প্রতিরোধক এবং যৌবন পুনরুদ্ধারের জন্য জিনসেং বিশেষ কার্য্করী । উপকারিতা– বিখ ইনসান যৌনশক্তি বর্দ্ধক, রোগ প্রতিরোধক, বলকারক, আনন্দদায়ক এবং আয়ুবর্দ্ধক হজম কারক, বমন নাশক, কফ ও কাশ দূর কারক এবং নিম্নরক্তচাপে বিশেষ উপকারী ।

এছাড়া স্ত্রীলোকের সন্তান উৎপাদন ক্ষমতা বৃদ্ধি করে । স্বাস্থ্যবান লোকেরাও বার্ধ্ক্য রোধে এবং কামোদ্দীপনা বৃদ্ধির জন্য ব্যবহার করে থাকে । আধুনিক গবেষকদের মতে জিনসিং স্মৃতিশক্তি হীনতার অবসান ঘটিয়ে মানসিক চাপ ও অবাসাদ কমিয়ে দেহ ও মনকে উদ্দীপ্ত করে । সংক্রামক ব্যধির বিরুদ্ধে দৈহিক রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা বাড়ায়,মাথা ব্যথা ও যন্ত্রনা উপশম চায়ের মত ব্যবহার যোগ্য । জিনসেং ব্যবহারে পুর্ণ্ঃ যৌবন লাভ সম্ভব, বল কারক, উত্তেজক ও কামোদ্দীপক ।

হজম কারক, বমন নাশক, স্বর পরিস্কারক, কফ নাশক, রক্তচাপ বৃদ্ধি কারক এবং রক্তের কলেষ্টেরল কমাতে জিনসেং এর জুড়ি নাই । জিনসেং জীবদেহের রাসায়নিক রুপান্তরে সাহায্যে করে মহিলাদের ডিম্বাশয়ের কার্য্কারীতা বাড়ায় এবং সন্তান উৎপাদনের ক্ষমতা সৃষ্টি করে গর্ভ্শয়কে শুদ্ধ করে।

Only logged in customers who have purchased this product may leave a review.

Reviews

There are no reviews yet.

See It Styled On Instagram

    Instagram did not return any images.

SUNDARBAN FARM

%d bloggers like this: